বিদেশি কর্মীদের ভিসা নবায়নের জটিলতা নিরসনে সিদ্ধান্ত নিয়েছে মালয়েশিয়া। ২৭ সেপ্টেম্বর দেশটির ইমিগ্রেশনের বিদেশি শ্রমিক বিভাগের পরিচালক আয়ূব বিন আবদ রহমান স্বাক্ষরিত এক নোটিশে বলা হয়েছে, গত ২১ সেপ্টেম্বর ইমিগ্রেশনের মহাপরিচালক দাতুক সেরি খায়রুল দাজাইমি দাউদের একটি প্রস্তাবপত্রের মাধ্যমে বিশেষ অর্থপ্রদানের পাস ইস্যুতে সম্মত হয়েছেন। যা ৬ বছর পর্যন্ত পিএলকেস, রি-হিয়ারিং এক্সটেনশন নীতির সিদ্ধান্ত স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে নেওয়া হয়েছে।

সিদ্ধান্ত অনুযায়ী যথাযথ ব্যবস্থা নিতে সকল ইমিগ্রেশন বিভাগকে এ নোটিশের মাধ্যমে জানানো হয়েছে। তবে কবে নাগাদ ভিসা নবায়নের অর্থ প্রদান করতে হবে নোটিশে তা বলা হয়নি।

গত ১ জুলাই কুয়ালালামপুর ইমিগ্রেশন (বিদেশি শ্রমিক) বিভাগের পরিচালক হামিদি বিন আদমের সই করা এক নোটিশে বলা হয়, প্ল্যান্টেশন ১৪ নম্বর ও রিহায়ারিং প্রোগ্রামে যারা ৫ নম্বর ভিসা পেয়েছেন তাদের ৬ নম্বর ভিসা আর নবায়ন হবে না। অর্থাৎ ৬ নম্বর ভিসা পাওয়াদের ফেরত যেতে হবে নিজ দেশে। এতে প্রবাসী রেমিট্যান্সে মারাত্মক প্রভাব ফেলে। নোটিশের আদেশ বাস্তবায়ন করতে দেশটির সব কয়েকটি ইমিগ্রেশন বিভাগকে বলা হয়।

এরপর ভিসা নবায়ন জটিলতা নিরসনে শুরু হয় কূটনৈতিক আলোচনা ও চিঠি চালাচালি।

সম্প্রতি বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ইসমাইল সাবরি ইয়াকুবের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতকারের সময় ভিসা নবায়নের জটিতা নিরসনের ব্যবস্থা নেবেন এমন আশ্বাস দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী।

২৫ জুলাই মালয়েশিয়ার সরকারকে কূটনৈতিক চিঠি পাঠিয়ে অনুরোধও জানায় হাইকমিশন।

তবে এক্ষেত্রে দূতাবাসের সঠিক পরামর্শ ছাড়া ভিসা রিনিউ করার লোভে পড়ে প্রতারিত না হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন হাইকমিশনের সংশ্লিষ্টরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *